1. masudkhan89@yahoo.com : admin :
  2. armanchow2016@gmail.com : bbn news : bbn news
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:১৮ অপরাহ্ন

অলিম্পিক হোটেল ‘গুচ্ছ করোনা’: বাড়ছে উদ্বেগ

সাংবাদিক :
  • আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১৫ জুলাই, ২০২১
  • ৮৮ সংবাদ দেখেছেন

বিবিএন নিউজ: টোকিওতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে। ৬ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ সংক্রমণ ঘটেছে সেখানে। এরই মধ্যে একটি হোটেলকে করোনার ক্লাস্টার বা কোভিড-১৯ গুচ্ছ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। ওই হোটেলে অবস্থান করছেন ব্রাজিলের অলিম্পিক টিমের কয়েক ডজন সদস্য। ফলে টোকিওতে অলিম্পিক গেমসে করোনা সংক্রমণ ঘটার নতুন উদ্বেগ সৃষ্টি হয়েছে। অলিম্পিক শুরুর ঠিক এক সপ্তাহ বাকি। এবার দর্শকশূন্য মাঠে খেলা হওয়ার কথা। তা সত্ত্বেও মহামারির মধ্যে বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই স্পোর্টস ইভেন্ট সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার বড় রকম ঝুঁকি সৃষ্টি করেছে। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। শহরের একজন কর্মকর্তা বলেছেন, টোকিওর দক্ষিণ-পশ্চিমে হামামাতসু শহরে এক হোটেলের সাতজন স্টাফ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তবে ব্রাজিলের ৩১ প্রতিনিধির অলিম্পিক দল হোটেলটিতে আছেন ‘বাবলে’র ভিতর। তাদেরেেক অন্য অতিথিদের থেকে আলাদা রাখা হয়েছে। কেউ আক্রান্তও হননি তারা। রাশিয়ার নারীদের সাত সদস্যের রাগবি টিমকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। তাদের ম্যাসাজকারী করোনা পজেটিভ হওয়ার পর এ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে মস্কো থেকে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রিয়া। দক্ষিণ আফ্রিকার পুরুষদের রাগবি টিমকেও আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।
উল্লেখ্য, উচ্চ মাত্রার করোনা ভাইরাস ভ্যারিয়েন্ট সর্বশেষ সংক্রমণের ঢেউ সৃষ্টি করেছে। এ ছাড়া জনগণকে দ্রুততার সঙ্গে টিকা দিতে ব্যর্থ হয়েছে জাপান। এ জন্য সেখানে বিপুল সংখ্যক মানুষ থেকে যাচ্ছেন ঝুঁকিতে। এরই মধ্যে বুধবার সেখানে একদিনে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১১৪৯ জন। ২২ শে জানুয়ারির পর এই সংখ্যা সর্বোচ্চ। অলিম্পিক গেমস শেষ না হওয়া পর্যন্ত আগামী ৮ই আগস্ট পর্যন্ত এই নাজুক অবস্থার কারণে টোকিওতে দেয়া হয়েছে জরুরি অবস্থা।  কর্মকর্তারা করোনামুক্ত রাখতে আরোপ করেছেন ‘অলিম্পিক বাবল’। কিন্তু চিকিৎসা বিষয়ক বিশেষজ্ঞরা তাতেও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তারা মনে করছেন, এতেও স্টাফদের চলাফেরা পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে না। ফলে সংক্রমণের মাত্রা বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা আছে। করোনা সংক্রমণের কারণে গত বছর স্থগিত করা হয় অলিম্পিক। এবার এক বছর বিরতি দিয়ে জাপানে তা আয়োজনের চেষ্টা হলেও তাতে দেশটির বেশির ভাগ জনগণের সমর্থন নেই। ওদিকে অলিম্পিক আয়োজনের জন্য আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির প্রেসিডেন্ট থমাস ব্যাচ প্রশংসা করেছেন আয়োজক ও জাপানের জনগণের। প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিহিদে সুগা’র সঙ্গে বৈঠকের পর থমাস ব্যাচ সাংবাদিকদের বলেছেন, এটা হবে একটি ঐতিহাসিক অলিম্পিক গেমস। জাপানিরা কয়েক বছর ধরে বহু চ্যালেঞ্জকে মোকাবিলা করে যেভাবে এই আয়োজন করছে, তার জন্য এটা স্মরণীয় হয়ে থাকবে।
২০১৩ সালে জাপানকে পরবর্তী অলিম্পিক গেমস আয়োজনের অনুমতি দেয়া হয়। ২০১১ সালে ভয়াবহ ভূমিকম্প, সুনামি এবং পারমাণবিক দুর্ঘটনার ক্ষত কাটিয়ে এই গেমসকে জাপান সেলিব্রেট করবে বলে আশা করা হয়েছিল। জাপানের নেতারাও আশা প্রকাশ করেছেন যে, এই বছর এই গেমসের নতুন করে শিডিউল করার মধ্য দিয়ে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে বৈশ্বিক জয় হবে।

শেয়ার করুন

একই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2021,বিবিএন নিউজ
Developer By Zorex Zira