1. masudkhan89@yahoo.com : admin :
  2. armanchow2016@gmail.com : bbn news : bbn news
মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১১:২৬ অপরাহ্ন

পরীমণি-রাজ আটক : যেমন ছিল পুরো অভিযান

সাংবাদিক :
  • আপডেট : বৃহস্পতিবার, ৫ আগস্ট, ২০২১
  • ১০৮ সংবাদ দেখেছেন

বিবিএন নিউজ: ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী পরীমনির রাজধানীর বনানীর বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মদ, ইয়াবা ও ভয়ংকর মাদক আইস- এলএসডিসহ তাকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব)। মাত্র কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে পরীমনির সহযোগী ও রাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার নজরুল ইসলাম রাজের বাসায় অভিযান চালিয়ে তাকেও আটক করেছে র‌্যাব।

বর্তমানে তাদের দুজনকেই র‍্যাব সদর দপ্তরে নেওয়া হয়েছে। সেখানে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। আগামীকাল তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছে র‍্যাব।

গতকাল বুধবার রাত ৮টা ১০ মিনিটে পরীমনিকে তার বনানীর বাসা থেকে বের করে একটি সাদা মাইক্রোবাসে নিয়ে যায় র‌্যাব। এরপর পরীমনিকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বুধবার রাত সাড়ে ৮টায় রাজের বাসায় অভিযান চালায় র‍্যাব।

টানা দুই ঘণ্টার অভিযান শেষে রাজধানীর বনানীর বাসা থেকে রাত ১০টা ১৫ মিনিটের দিকে রাজকে বের করে আনেন র‍্যাবের সদস্যরা। এরপর তাকেও নেওয়া হয় র‍্যাব সদর দপ্তরে। বাহিনীর লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ।

তিনি জানান, রাতে র‌্যাব সদর দপ্তরেই থাকবেন পরীমনি ও রাজ। তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। এরপর আগামীকাল আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

র‌্যাবের সুত্রে জানা গেছে, পরীমনির বাসার সেলফে সাজানো ছিলো বিদেশি মদ। বিদেশি ব্রান্ডের বহু মদ মিলেছে তার বাসায়। এমনকি ফ্রিজও ভর্তি ছিল নামি-দামি ব্রান্ডের মদে। এর পাশাপাশি তার বাসায় মিলেছে ইয়াবা ও ভয়ঙ্কর মাদক এলএসডি-আইস।

যেভাবে শুরু হয় অভিযান

গতকাল বুধবার বিকেল ৪টার দিকে পরিমনির বনানীর ১৯/এ সড়কের ১২ নাম্বার বাসায় অভিযান শুরু করে র‍্যাব সদস্যরা। প্রথমে সাদা পোশাকে তার বাসায় প্রবেশের চেষ্টা চালায় র‍্যাব সদস্যরা।

এ সময় র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে হঠাৎ ফেসবুকে লাইভে চলে আসেন পরিমনি। লাইভে পরীমনি বলেন, ‘কারা যেন আমার বাসায় ঢোকার চেষ্টা করছে। কেউ কালো কাপড় পরে আছেন, কেউ রঙিন কাপড় পরে আছেন। এরা কারা ভাই? আমি লাইভ কাটছি না।’

পরীমনি আরও বলেন, ‘পুলিশ হলে তো দরজা খুলেই দেব। কিন্তু তারা তো পরিচয় দিচ্ছে না। মেরে ফেললে সবার সামনে মেরে ফেলে যাক। আমি লাইভ কাটব না। সবাই দেখুক। সবাইকে দেখায় দেব, এরা কী কী করে।’

এ সময় পরীর বাসার দরজা ধাক্কার শব্দ পাওয়া যায়। পরীমনি বলেন, ‘ভাই আপনারা কিছু দেখতেসেন না, কিছু বলতেসেন না। আমি যে কী পরিমাণ সিক। তিন দিন ধরে বিছানা থেকে উঠতে পারছি না। আমার পরিচিতরা কী আসবেন? একটু দেখবেন, এরা কারা। লিটারেলি আমার দরজা ভাঙচুর করতেসে।’

যেমন ছিলো পুরো অভিযান

সরেজমিনে দেখা যায়, পরিমনির এমন ফেসবুক লাইভের পর তার বাসার সামনে জড়ো হতে থাকে গনমাধ্যমকর্মী ও সাধারণ মানুষেরা। বিকেল সারে ৪টায় তার বাসার সামনের সড়কের দুই পাশ আটকিয়ে দেয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। এরপর একে একে বাসার সামনে আসতে থাকে র‍্যাবের একাধিক টিম। সাথে বনানী থানা পুলিশও ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে যায়।

এরপর বেলা সাড়ে ৪টার পর র‍্যাব সদস্যরা পরীমনির বাসার ভেতরে প্রবেশ করেন। এ সময় ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিমসহ অন্য গোয়েন্দা সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও ঘটনাস্থলে এসেছিলেন।

বিকেল ৫টার দিকে পরীমনিকে আটক করা হয়েছে বলে আনুষ্ঠানিকভাবে জানায় র‍্যাব। এরপর সব্ধ্যার দিকে তার বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মদ উদ্ধার করা হয়েছে বলেও জানায় র‍্যাব।

বাসার সামনে মানুষের ভিড় ঠেকাতে মাইকিং

সরেজমিনে আরও দেখা গেছে , পরীমনিকে আটকের খবর পেয়ে তার বাসার সাননে ভিড় জমিয়েছে হাজারো মানুষ। করোনা পরিস্থিতিতে এমন উৎসুক জনতার ভিড় ঠেকাতে তাই পরীমনির বাসার সামনে মাইকিং করছেন বনানী সোসাইটি।

বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে বনানী সোসাইটির ম্যানেজার সৈয়দ মোস্তাক উদ্দিন হ্যান্ড মাইক হাতে নিয়ে প্রচার করতে থাকেন। তিনি উৎসুক জনতার উদ্দেশ্যে বলেন, ‘উপস্থিত সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হচ্ছে। আপনারা অযথা ভীড় করবেন না। সকলে সামাজিক দুরুত্ব বজায় রাখুন।’

তিনি আরও বলেন, ‘ভয়াবহ করোনা পরিস্তিতে দয়া করে সকলে সর্তক থাকুন। সাংবাদিক ভাইয়েরা ছাড়া অন্য সকল সাধারণ মানুষ দয়া করে এখান থেকে চলে যান।’

এ সময় পুলিশ ও স্থানীয় নিরাপত্তা কর্মীদের বার বার সাধারণ মানুষকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করতে দেখা গেছে। কিন্তু শত অনুরোধের ফলেও সরে যাননি এসব মানুষ।

অভিযানচলাকালে র‍্যাবের বেশির ভাগ সদস্য পরীমনির বাসার নিচে গ্যারেজে অপেক্ষা করছেন। তার বাসার মুল ফটক লাগিয়ে দিয়ে ভেতর থেকে বাইরে বা বাইরে থেকে ভেতরে কাউকেই প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি।

যেমন ছিলো পরীর বাসা

স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা গেছে, বনানীর যে বাসা থেকে পরীমনিকে আটক করা হয়েছে। সেই বাসার তৃতীয় তলার একটি ফ্ল্যাট কিনেছেন পরীমনি। নিজের কেনা ওই ফ্ল্যাটেই বেশ কিছুদিন থেকে বসবাস করছিলেন তিনি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই বাসার পাশের এক সিকিউরিটি গার্ড বলেন, প্রায়ই মধ্য রাতে বাসায় ফিরতেন পরীমনি। তার বাসাতেও নতুন নতুন গাড়ি নিয়ে অনেক নারী-পুরুষ যাতায়েত করতো।

বাড়িটির মূলফটকে একটি বড় গাছ লাগানো রয়েছে। ছাদেও রয়েছে গাছের বাগান। বাসার গেটের ভেতরের গ্যারেজেম পরীমনির গাড়িসহ একাধিক গাড়ি লক্ষ্য করা গেছে।

পরীর বাসার সামনে মাস্ক বিক্রি

মো. এমদাদুল হক। গ্রামের বাড়ি বরগুনা জেলায়। দুই ছেলে এক মেয়েকে নিয়ে টানাপোড়েনের সংসার। জীবীকা নির্বাহ করতে তাই মাস্ক বিক্রির ব্যবসা শুরু করেছেন তিনি।

প্রতিদিন তার টার্গেট থাকে কমপক্ষে দুই শতাধিক মাস্ক বিক্রি করা। বুধবার সারাদিন বনানীর বিভিন্ন সড়কে ঘুরে ঘুরে মাস্ক বিক্রি করেছেন তিনি। কিন্তু সামান্য কিছু মাস্ক বিক্রি করতে পেরে হতাশায় ভুগছিলেন এমদাদুল।

বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে টিভিতে দেখেন- পরিমনিকে তার বাসা থেকে আটক করা হচ্ছে। পরিমনির বাসার সামনেই ভিড় জমিয়েছেন হাজারো মানুষ।

এমন সংবাদ দেখে খুব দ্রুত হাতে মাস্কের ব্যাগটি নিয়ে হাজির পরীর বাসার গেটে। এরপর মাত্র ৩০ মিনিটেই তার সব মাস্ক বিক্রি হয়ে গেছে। পরে নিজের স্ত্রীর মাধ্যমে আরও কিছু মাস্ক বাসা থেকে নিয়ে এসেছেন তিনি।

এমদাদুল হক দৈনিক আমাদের সময়কে বলেন, ‘একটা ক্যান্টিনের টিভিতে দেখলাম নায়িকার বাসার সামনে অনেক মানুষ। তাকে নাকি আটক করা হয়েছে। তাই এখানে মাস্ক বেচতে আইছি। এক ব্যাগের সব বেইচা, এখনো এখান থেকে আরও ৮/১০ প্যাকেট বিক্রি করছি ‘

উল্লেখ্য, বেশ কিছু দিন ধরেই আলোচনায় রয়েছেন নায়িকা পরীমনি। কিছুদিন আগে ঢাকার সাভারের বোটক্লাবে যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছেন অভিযোগ করে আলোচনায় আসেন তিনি। সে ঘটনায় কয়েকজন গ্রেপ্তারও হয়েছিলেন। বর্তমানে তারা জামিনে রয়েছেন।

তবে ওই ঘটনার পরে একাধিক ক্লাবে ভাঙচুরের অভিযোগ ওঠে পরীমনির বিরুদ্ধে। গত কয়েক দিন আগে পিয়াসা ও মৌ নামেরও দুইজন মডেল গ্রেপ্তার হয়েছেন। তাদের বাসা থেকেও বিপুল মাদক উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শেয়ার করুন

একই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2021,বিবিএন নিউজ
Developer By Zorex Zira